১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার,সকাল ১১:৪৯

অবৈধ বানিজ্য দমনে বন্যপ্রাণী অপরাধীদের গ্রেপ্তার করতে হবে

প্রকাশিত: মার্চ ৩, ২০২৪

  • শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক. বাংলাদেশ এখন বন্যপ্রাণির অবৈধ বানিজ্যের মূল রুট হিসেবে কাজ করছে। এদেশ থেকেও বন্যপ্রাণি বিভিন্ন দেশে পাচার হচ্ছে। মনুষ্য জাতিকে টিকিয়ে রাখতে, মানুষের প্রয়োজনেই বন্যপ্রাদের টিকিয়ে রাখতে হবে। এজন্য সবার আগে বন্য প্রানির অবৈধ বানিজ্য বন্ধ করতে হবে। অবৈধ বানিজ্য দমনে বন্যপ্রাণি অপরাধীদের গ্রেপ্তার করতে হবে। সে যত বড় ক্ষমতাবান হোকনা কেন, অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনতে হবে।

রবিবার (৩ মার্চ) বেলা ১১টায় বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস উপলক্ষে বাগেরহাটের মোংলায় বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবসে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন। “পৃথিবীর অস্তিত্বের জন্য প্রাণীকূল বাঁচাই” শ্লোগানে ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা), ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ, সুন্দরবন রক্ষায় আমরা ও পশুর রিভার ওয়াটারকিপার আয়োজনে শহরের চালনা বন্দর মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনের সড়কে এই মানববন্ধন ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়।সুন্দরবন রক্ষায় আমরা’ এর সমন্বয়কারী মোঃ নূর আলম শেখ’র সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, চালনা বন্দর মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রোকন উদ্দিন, শিক্ষক নেতা শরিফুল ইসলাম, ‘ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা)’ এর নেতা আব্দুর রশিদ হাওলাদার, ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ’র কমলা সরকার, পরিবেশকর্মী মো: আলম গাজী, হাছিব সরদার, পশুর রিভার ওয়াটারকিপার ভলান্টিয়ার শেখ রাসেল প্রমূখ।

বক্তারা আরও বলেন, সুন্দরবনের বাঘ, হরিণ, ভোদড়, হাঙ্গর, ইরাবতি ডলফিন, শুশুক, কচ্ছপ, শকুন, শাপলাপাতা মাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির বন্যপ্রাণী আজ মহাবিপন্ন, বিপন্ন ও সংকটাপন্ন তালিকার অন্তর্ভূক্ত। জাতিসংঘের আইইউসিএন, ১৮৩টি দেশ স্বাক্ষরিত সাইটিশ চুক্তি ও বন্যপ্রাণী আইন সংরক্ষণ আইন ২০১২ অনুযায়ি বাংলাদেশের ৪৩টি স্থলচর স্তন্যপায়ী প্রাণী, ৮৪টি পাখি, ৫০টি সরীসৃপ, ১৬টি বাদুড়/শাপলাপাতা মাছ, ১২টি হাঙ্গর/কামুট এবং ২টি উভচর প্রাণী মহাবিপন্ন, বিপন্ন এবং সংকটাপন্ন তালিকায় অন্তর্ভূক্ত হয়েছে। এসব প্রাণিদের রক্ষায় কাজ করতে হবে। এছাড়া অপরাধিদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান বক্তারা।

মানববন্ধন শেষে দুপুরে মোংলা উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ হাবিবুর রহমানের মাধ্যমে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বরাবরে সুন্দরবনের বন্যপ্রাণী সুরক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

  • শেয়ার করুন