১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার,দুপুর ১২:৪৮

বাগেরহাটে ডুবে যাওয়া বাল্কহেড থেকে চাল উদ্ধার শুরু

প্রকাশিত: এপ্রিল ১, ২০২৪

  • শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক. বাগেরহাটের মোংলা পশুর চ্যানেলে ডুবে যাওয়া বাল্কহেড এম ভি সাফিয়া থেকে চাল উদ্ধার শুরু হয়েছে। সোমবার (১ এপ্রিল) সকালে ৭ টা ট্রলারে থেকে ৭ জন ডুবুরি ও ৫০ জন শ্রমিক ৮টি ট্রলার নিয়ে চাল উদ্ধার কাজে অংশ নেন। চাল অপসারন কাজ শেষে বাল্কহেডটি উদ্ধার করতে দুই তিন দিন সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন উদ্ধার কাজে অংশ নেওয়া শ্রমিকরা। তবে দীর্ঘ সময় পানির নিচে থাকায় বেশির ভাগ চালের বস্তা ফেটে গেছে এবং চাল ফুলে উঠেছে।

শ্রমিক  শেখ রাজু বলেন,৭ জন ডুবুরী ও ৫০ জন শ্রমিক মিলে চাল উদ্ধার শুরু করেছি। দুপুর পর্যন্ত দেড় হাজার বস্তা চাল উঠানো সম্ভব হয়েছে। এই ভাবে কাজ করলে তিন দিনের মত সময় লাগবে।

রবিউল নামের আরেক শ্রমিক বলেন, জাহাজটি যেখানে ডুবেছে সেখানে প্রায় ৩০ ফুট পানি রয়েছে। ডুবুরিরা অক্সিজেন পানির নিচে গিয়ে হুক লাগিয়ে দেয়, আর আমরা উপর থেকে টেনে তুলি। তবে চালগুলো ফুলে উঠেছে। বেশিরভাগ বস্তা ফেটে গেছে।

চাল পরিবহনকারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স আব্দুর রশিদ এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি মোঃ আরাফাত বলেন, ডুবে যাওয়া এমভি সাফিয়া নামের বাল্কহেডটির মাধ্যমে আমরা সরকারি এ চাল মোংলা খাদ্য গুদামে পৌছানোর দায়িত্বে ছিলাম। সকাল থেকে আমরা চাল উত্তোলনের কাজ শুরু করেছি। চাল উত্তোলনের পর ডুবে যাওয়া বাল্কহেডটি উদ্ধার করা হবে।

মোংলা নৌ পুলিশের ইনচার্জ সৈয়দ ফকরুল ইসলাম বলেন,বাল্কহেডটিকে  ধাক্কা দেওয়া লাইটার এভি শাহাজাদা-৬’ কে রবিবার রাতে জব্দ করা হয়েছে। চাল পরিবহনকারী প্রতিষ্ঠান, বাল্কহেডের শ্রমিকসহ সংশ্লিষ্ট সবার সাথে যোগাযোগ করা হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থ পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে মামলা দায়ের করা হবে।

রবিবার(৩১ মার্চ) বিকেলে মোংলার পশুর নদীর ত্রি-মোহনায় ‘এমভি শাহাজাদা-৬’ নামে একটি লাইটার জাহাজের ধাক্কায় বাল্কহেডটি ডুবে যায়।  তবে এসময় কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি, জাহাজে থাকা ৫ নাবিক অক্ষত অবস্থায় জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এদিকে ধাক্কা দেওয়ার অপরাধে’এভি শাহাজাদা-৬’নামের লাইটার জাহাজটিকে এদিন সন্ধ্যায় আটক করেছে নৌ পুলিশ।

এর আগে সকালে খুলনার সরকারি খাদ্য গুদাম থেকে ছয় হাজার বস্তায় ১৭৫ মেট্রিক টন সরকারী চাল নিয়ে মোংলা খাদ্য গুদামের উদ্দেশ্য ‘ এমভি সাফিয়া’ নামে চাল বোঝাই একটি বাল্কহেড জাহাজ ছেড়ে আসে। ঈদ উপলক্ষে গরীব অসহায়দের জন্য চালগুলো আনা হয়েছিল।

  • শেয়ার করুন