২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার,সকাল ৬:০৫

রামপালে স্কুল শিক্ষার্থী গনধর্ষণের শিকার, গ্রেফতার দুই যুবক

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২৩

  • শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক. বাগেরহাটের রামপালে মামা বাড়ি যাবার সময় জোর করে মোটরসাইকেলে তুলে মৎস্য ঘেরে নিয়ে নবম শ্রেনীর এক শিক্ষার্থীকে গন ধর্ষণ করেছে তিন বখাটে। এঘটনার অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অন্য পলাতক যুবককে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে বলে জানায় রামপাল থানার অফিসার্স ইনচার্জ এসএম আশরাফুল ইসলাম।

পুলিশ ও নিযার্তনের শিকার পরিবার জানায়, শুক্রবার বিকেলে বাড়ি থেকে কোচিং করতে বের হয় নবম শ্রেনীর পড়ুয়া এক শিক্ষার্থী।পথিমধ্যে হঠাৎ শারীরিক সমস্যার দেখা দিলে কোচিং করতে না গিয়ে মামার বাড়িতে যাওয়ার জন্য রওনা হয়।এরপরই খুলনা-মোংলা মহাসড়কের রনসেন মোড় এলাকায় তারগতিরোধ করে রহমত (২৬) ও শেখ রাসেল শেখ (২৬) ওই কিশোরীকে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে নিয়ে যায়। পরে রামপাল উপজেলার বড় দুর্গাপুর পুটিমারি এলাকার পলাশের ঘেরের টংঘরে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে অবস্থান করা রাকিব হোসেন সজল এবং অপহরনকারী রহমত ও শেখ রাসেল শেখ মিলে দলগত ভাবে ধর্ষণ করে। পরে রাত ৭টার দিকে মহেন্দ্রযোগে ভিকটিমকে নিজ বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। এরপরই ৯৯৯ ফোন করে সহায়তা চায়। পরে পুলিশ রাতেই রাকিব হোসেন সজল ও শেখ রাসেল শেখকে গ্রেফতার করে পুলিশ।এঘটনায় ভিকটিম ও তার মা দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করেন।

অভিযুক্তরা হলেন,রামপাল উপজেলার গোবিন্দপুর  গ্রামের শেখ মাহবুবুর রহমানের ছেলে রহমত আলী, শেখ ফরহাদের ছেলে শেখ রাসেল শেখ ও কালেখারবেড় গ্রামের আজমল হোসেনের ছেলে রাকিব হোসেন সজল ।

বাগেরহাটের রামপাল থানার অফিসার্স ইনচার্জ এসএম আশরাফুল আলম বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় ওই কিশোরীর মামা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন।তিন আসামীর মধ্যে আমরা দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছি। অন্য আসামীকে গ্রেপ্তার করতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

  • শেয়ার করুন